হারনেট টিভির ব্যতিক্রমী আয়োজন ‘হারনেট হাই-টি’

নিজস্ব প্রতিবেদক

দেশে কর্মরত নারী সংবাদিকদের নিয়ে গত শনিবার ‘হারনেট হাইটি উইথ জার্নালিস্ট’ এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল। আন্তর্জাতিক নারী দিবস  উপলক্ষে বনানীর ফিউশন হান্ট রেস্টুরেন্টে দেশের অদম্য সাহসী, সংগ্রামী নারীদেরকে সম্মানিত করার জন্য অনুষ্ঠানটির আয়োজন করে হারনেট টেলিভশন।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন হারনেট টিভির চেয়ারপারসন হোসনা প্রধান। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আমাদের নতুন সময়ের সম্পাদক নাসিমা খান মন্টি, বিয়াস এন্টারপ্রাইজের সত্ত্বাধিকারী নাদিয়া বিনতে আমিন, জেমকন গ্রুপের পরিচালক ড. মালিহা মান্নান, ফ্যাশন হাউস বিবিয়ানার স্বত্বাধিকারী বিশিষ্ট ডিজাইনার লিপি খন্দকার, ফিউশন হান্ট রেস্টুরেন্টের কর্ণধার শারমিন শাহেদ, প্রাইম ব্যাংক লিমিটেডের অ্যাসিসট্যান্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট শায়লা আবেদীন,  ক্রিমসন গ্রুপের কর্ণধার সরফরাজ আনোয়ার উপল মালিক, এডকম এজেন্সীর এমডি নাজিম ফারহান চৌধুরী (অনলাইনে উপস্থিত), ড্যানকেকের ডিরেক্টর অব মার্কেটিং মিনহাজ হোসেন এবং হারনেট টিভির ফাউন্ডিং সিইও আলিশা প্রধান প্রমুখ।

আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ নারী সাংবাদিক সমিতি (বানাসাস) সভাপতি নাসিমা সোমা, নাগরিক টেলিভিশনের প্রধান প্রতিবেদক শাহনাজ শারমিন, প্রথম আলো পত্রিকার প্রতিবেদক রোজিনা ইসলাম, বানাসাস সাধারণ সম্পাদক আনজুমান আরা শিল্পী, ঝর্ণা মনি, সেবিকা দেবনাথ, রুমি আকতার পলি, পান্না আকতার, নাসরিন শওকত, ইরানি বিলকিস, ডালিয়া, ট্রান্স জেন্ডার রানী চৌধুরী প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে হারনেট টিভির চেয়ারপারসন হোসনা প্রধান বলেন, হারনেট টিভি নারী, শিশু ও তৃতীয় লিঙ্গদের জীবনযাত্রা, নারী ক্ষমতায়ন এবং তাদের জীবন মানোন্নয়নমূলক বাস্তব চিত্র প্রতিফলনের আলোকে সমন্বিত বন্ধনে নারী কল্যাণে এশিয়ার প্রথম টিভি হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে।

হারনেট টিভির ডিএমডি ফাইজা প্রধান বলেন, সমাজের এবং দেশের অর্থনৈতিক প্রতিটি খাতে কল্যাণমূলক বলিষ্ঠ ভূমিকা রাখতে হারনেট আপনাদের পাশে চায়। এর ফলে দেশের নারী সমাজ দেশ তথা বহির্বিশ্বে যুগোপযোগী পরিচিত ঘটবে বলে মনে করি।

বাংলাদেশ নারী সাংবাদিক সমিতি (বানাসাস) সভাপতি নাসিমা সোমা তার বক্তব্যে বলেন, বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকে এখন সকল পদে নারীরা আসীন হয়েছেন। জাতীয় সংসদের স্পিকার, সংসদ নেতা, বিরোধী দলীয় নেতা, সংসদীয় উপনেতা সবাই মহিলা। আগের তুলনায় নারী সাংবাদিকের সংখ্যা বেড়েছে। এটাই বাংলাদেশে সবচেয়ে বড় অর্জন। প্রতিবন্ধকতা ছিল, আছে, থাকবে। তাই বলে থেমে যাওয়া চলবে না। এটা ঠিক, নানা প্রতিকূলতার মধ্য দিয়ে নারী সাংবাদিকেরা কাজ করে যাচ্ছেন কিন্তু তারা দমে যাননি। সংসারের কাজের পাশাপাশি তারা রাত-দিন যখনই প্রয়োজন, নিজের পেশার প্রয়োজনে দৌড়াচ্ছেন। নারীদের সাংবাদিকতা পেশায় কাজ করাকে আগে নেতিবাচকভাবে দেখলেও সময়ের সঙ্গে সঙ্গে মানুষের দৃষ্টিভঙ্গিও পালটে গেছে। এ ক্ষেত্রে পুরুষ সহকর্মীরা সহযোগিতা করলে নারীদের কাজ করার পথটা আরেকটু মসৃণ হতে পারে। নারী সাংবাদিকদের অগ্রযাত্রায় তিনি সব সময় কাজ করে যাবেন বলে জানান।

অপরদিকে হারনেট টিভির ফাউন্ডিং সিইও আলিশা প্রধান সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে  বলেন, একজন মহিলা সাংবাদিক হিসেবে আপনারা যে দুর্দান্ত কাজটি করেন তার জন্য আমরা অনেক গর্ববোধ করি। হারনেট সর্বস্তরে আপনাদেরকে প্রেরণা যোগাবে, উদ্দীপনা দিবে, অনুপ্রেরণা দিবে। এমনকি বলিষ্ঠ হাতে কলম ধরতে সাহস যোগাবে। আমরা আছি আপনাদের মতো যোদ্ধাদের সাথে।

উল্লেখ্য, নারী, শিশু ও তৃতীয় লিঙ্গদের জন্য কল্যাণমূলক বহুবিধ কাজ করার বাইরেও এ বছর হারনেট বহু ইভেন্ট সেমিনার করেছে। যেখানে নারী ক্ষমতায়নের বিষয়টি উঠে  আসে। গত ২ জানুয়ারি রেডিসন হোটেলে উইমেন রিট্রেস নামক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে সফল কর্পোরেট উইমেন্সদের জন্য বিশাল একটি প্রোগ্রাম করেন।  

হারনেট টেলিভশন সকল বড় বড় আন্তর্জাতিক অর্গানাইজেশন যারা সিএসআর এর মাধ্যমে নারী ক্ষমতায়ন করেছে। সমাজে যারা কল্যাণমূলক কাজ করে তাদেরকে পরিচিত করার জন্য হারনেট রেডিসন হোটেলে গ্লোবাল বিজনেস সিএসআর অ্যাওয়ার্ডে কো-পার্টনার থাকে।

ফ্যাশন শিল্পখাতে বড়  বড় ফ্যাশন নারী উদ্যোক্তাদেরকে প্রমোট করার জন্য ইভেন্ট, সেমিনারের মাধ্যমে  হারনেট কাজ করে আসছে। সমাজের অসহায়দের পাশে থাকার জন্য নানাভাবে সহযোগিতা করছে। যে সকল অসহায় নারী আইনি সহায়তা পায়না তাদেরকে দুই জন সুপ্রীম কোর্টের আইনজীবি এবং পুলিশ কর্মকর্তার মাধ্যমে তাৎক্ষণিক আইনি সহায়তা প্রদানের জন্য এবং তাদের সমস্যা সমাধানের জন্য নারীর আইনি লড়াই নামক অনুষ্ঠান ৫ মার্চ থেকে হারনেট টিভিতে প্রচার হচ্ছে। শিশু ও তৃতীয় লিঙ্গদের নিয়ে কাজ করছে। আত্মনির্ভশীলতা থেকে শুরু করে, প্রেগনেন্সি, হেলথ, মেন্টাল সাপোর্ট, ক্যারিয়ার সাপোর্ট, অর্থনৈতিক সাপোর্ট, নানাবিধ সামাজিক কাজে অভূতপূর্ব ভূমিকা রেখে আসছে হারনেট টিভি।

এছাড়া আগামী ৩ এপ্রিল বাংলাদেশের ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে এবং মুজিবর্ষের ১শ’তম বর্ষ উপলক্ষে নারীদেরকে নিয়ে হারনেট টিভি উইমেন্স কনভোকেশন নামক এক বিশাল প্রোগ্রামের আয়োজন করবে লা মেরিডিয়ান হোটেলে। যেখানে নারীদের ক্ষমতায়ন, নারীদের কল্যাণ, বিবিধ সমস্যা সমাধানের এক সমন্বয় ঘটবে যেখানে বাংলাদেশ নারীদের সমতার এক নতুন প্রয়াস পাবে এবং অভূতপূর্ব সমাধানের সূত্র গেঁথে হারনেট এক বিশাল আয়োজন করবে।

ওমেন্স নিউজ ডেস্ক/

লাইক, কমেন্টস, শেয়ার দিয়ে আমাদের সাথে থাকুন