হোমায়রা হুমার গদ্যকবিতা ‘করবীবন্ধন’

হোমায়রা খাতুন

করবীবন্ধন
( এমিলি, তোমাকে)

যা পেয়েছ সব জারিজুরি, বিদেশ আর স্বদেশের ভেলায় মন ডুবিয়ে মিথ্যে খেলায়, কি পেলে তুমি বলো! ভালবাসার ঝুড়িটায় পরোটা-ডিম নাকি খিচুড়ি মজামাখা জলডুবি নাকি ঝালমুড়িরপূর্ণ হাসিমাখা শুকনো সেই মুখ, ভুলিনি গো, ভুলবোনা কখনো,ভোলা যায় না, রুপালী রুপসী;

নাকি রবীন্দ্র সরোবরের ঝিরিঝিরি পাতা ঝরা মিষ্টি বাতায়ন,নাকি কুলকুল বয়ে যাওয়া নদীতটিনী,
নাকি মালাই ভাসানো চায়ের ছোট্ট কাপে জীবন লিপিকা চিনিসম গুলিয়ে, সময়কে পাশ কাটিয়ে, অম্লমধুর দিবস কাটানো শিক্ষাগুরুর সার্টিফিকেটে স্বাক্ষর কালির গভীরে,ভালবাসায় ঝুলন্ত দু'টিতরী,
ডুবছে; বন্ধু,
কিসে পরিপূর্ণা তুমি বলো, দুচোখে কতটাদিন স্পর্শবিহীন সহ্যসহ বাধ্য দুজনে,গোপন অভিসারে বয়েসী বয়েসটা টেনে টেনে আজ সীমানার পার;
কষ্ট নেই কষ্টের তবু বেদনা বিধূর মনস্বিনী তুমি, এক পেয়ালা গরম চা দিতে পারোনি কতযুগ,কে কেন কার জন্যে জীবন করেছ পানসে,নেতিয়ে পড়া শাড়ীর আঁচলে তোমার, প্রেম কি তবে সত্যি জ্বালায় সেতারের তার ভৈরবীচক্র যেন!
সে কবেকার কিসের পূর্ণিমার পূর্ণতায় মগ্ন তুমি, রুগ্নতায় যদি তার কপালে বা কপোলে বুলিয়ে না দিতে পারো রুগ্ন আঙ্গুলের ছাপ তোমার, কিসের ভালবাসা সেকি কেবল দায়টি পালন, আত্মজা আর একটি করবীবন্ধনে!

ওমেন্স নিউজ সাহিত্য/

লাইক, কমেন্টস, শেয়ার দিয়ে আমাদের সাথে থাকুন