শুভ জন্মদিন বিখ্যাত কথাসাহিত্যিক আন্তন চেখভ

আন্তন চেখভ

আধুনিক ছোটগল্পের প্রসঙ্গ উঠলে যার নাম সবার আগে মনে আসে তিনি রুশ লেখক আন্তন চেখভ। তাকে বিশ্বসাহিত্যের অন্যতম সেরা ছোটগল্পকার হিসেবে বিবেচনা করা হয়ে থাকে। তবে নাট্যকার হিসাবেও তার খ্যাতি কিন্তু কম নয়। সবচেয়ে বেশি সংখ্যক নাটক মঞ্চস্থ হয়েছে এমন নাট্যকারদের মধ্যে শেক্সপিয়ার ও ইবসেনের পাশাপাশি উল্লেখ করা হয়ে থাকে চেখভের নামও। এছাড়া মঞ্চনাটকে প্রাক-আধুনিকতার উদ্ভবে অন্যতম তিনজন ব্যক্তিত্বের মধ্যে ইবসেন ও অগুস্ত স্ত্রিন্দবারির পাশাপাশি তিনিও একজন।

১৮৬০ সালের ২৯শে জানুয়ারি দক্ষিণ রাশিয়ার আজভ সাগর সংলগ্ন বন্দরনগরী তাগানরোগে জন্মগ্রহণ করেন আন্তন চেখভ। তার পুরো নাম আন্তন পাভলোভিচ চেখভ। বাবা পাভেল জেগোরোভিচ চেখভ ছিলেন ভরনেজ প্রদেশের ওলহভাৎকা গ্রামের একজন প্রাক্তন ভূমিদাস কৃষক এবং  মা জেভগেনিয়া জাকোভলেভনা ছিলেন ইউক্রেনীয়। তাদের  ছয় সন্তানের মধ্যে তিনি ছিলেন তৃতীয়। বাবার আর্থিক অবস্থা মোটেও ভালো ছিল না। পাওনাদারের ভয়ে একসময় সপরিবারে মস্কোতে পালিয়ে যান পাভেল চেখভ।

একজন ধর্মপ্রাণ ও গোড়া খ্রিস্টান হওয়া সত্ত্বেও পাভেল চেখভ ছিলেন বাবা হিসেবে অত্যন্ত কঠোর ও রূঢ়। এই বদরাগী বাবার কঠোর অনুশাসনে বড় হয়ে ওঠেন চেখভ। অন্যদিক চেকভের মা জেভগেনিয়া জাকোভলেভনা ছিলেন চমৎকার গল্পকথক। তিনি তার ছেলেমেয়েদের কাছে তার কাপড়-ব্যবসায়ী বাবার সাথে পুরো রাশিয়া ভ্রমণের গল্প বলতেন। মায়ের এই গল্পগুলো চেখভের লেখক হওয়ার ক্ষেত্রে অনেকখানি প্রভাব বিস্তার করেছে বলে ধারণা করা হয়ে থাকে। লেখক নিজেও এটা স্বীকার করেছেন। নিজের মায়ের প্রসঙ্গে তিনি একবার বলেছিলেন-‘আমরা আমাদের মেধা বাবার কাছ থেকে পেয়েছি, কিন্তু হৃদয় পেয়েছি মায়ের কাছ থেকে।’

শৈশবে লেখাপড়া শুরু করেন তাগানরোগের এক গির্জার স্কুলে এবং পরে ভর্তি হন গ্রিক স্কুলে। ছাত্র হিসাবে মাঝারি মানের চেখভকে শিক্ষাগ্রহণের জন্য অনেক কষ্ট করতে হয়েছে। পরিবারের আর্থিক অস্বচ্ছলতার কারণে নিজের পড়ার খরচ নিজেকেই বহন করতে হতো। এজন্য টিউশনি থেকে শুরু করে গোল্ডফিঞ্চ পাখি ধরে বিক্রি, খবরের কাগজে ছোট ছোট স্কেচ আঁকা এমনকি সস্তা দরের লেখা লিখেও  অর্থ উপার্জন করতে হয়েছে তাকে। উপরন্তু নিজের দৈনন্দিন খরচ থেকে বাঁচিয়ে কিছু অর্থ মস্কোতে থাকা পরিবারকে পাঠাতে হতো। একই সঙ্গে মজার মজার চিঠি লিখে পাঠাতেন যাতে নিজের বাবা-মা আর ভাইবোনেরা আনন্দে থাকেন।

এই সময়টাতে তিনি প্রচুর পরিমাণে পড়েছেন থের্ভান্তেস, তুর্গেনেভ, গনচারভ ও শোপনহাওয়ারের মতো লেখকদের সাহিত্য। পাশাপাশি বেশ কিছু প্রেমও করেছেন। ১৮৭৯ সালে চেখভ স্কুলের পড়াশোনা শেষ করে মস্কোতে তার পরিবারের সাথে যোগ দেন চেখভ।  সেখানে আই.এম. সেচেনভ ফার্স্ট মস্কো স্টেট মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হন তিনি। ১৯৮৪ সালে চিকিৎসাবিজ্ঞানে ডিগ্রি নিলেও তিনি ডাক্তার হিসাবে সেভাবে সফল হতে পারেননি। দরিদ্রদের চিকিৎসায় তিনি তাদের কাছ থেকে অর্থ গ্রহণ করেননি। এছাড়া ডাক্তার হওয়ার আগেই লেখক হিসেবে খ্যাতি ছড়িয়ে পড়ায় সাহিত্যচর্চাতেই বেশি মনোযোগী ছিলেন চেখভ।

তার সাহিত্যিক হওয়াটা কোনও শখের বিষয় ছিল না। বরং পরিবারের খরচ যোগাতে ছাত্রাবস্থাতেই লেখালেখি শুরু করেছিলেন চেখভ। নানা পত্র পত্রিকায় সমসাময়িক রুশ জীবন নিয়ে ছোট ছোট হাস্যরসাত্মক নাটক বা রচনা লিখতেন এবং অলঙ্করণমূলক নকশা আঁকতেন। এসময় বেশিরভাগ লেখাই লিখেছেন ছদ্মনামে। যে দুটি ছদ্মনামে তিনি লেখক সমাজে পরিচিতি পেয়েছিলেন সেগুলো অন্যতম হচ্ছে- আন্তোশা চেখন্তে ও রাগহীন মানব (Man without a Spleen)। তার এই চিত্রাঙ্কণ ও বিদ্রুপাত্মক ধাঁচের লেখার জনপ্রিয়তা তাকে ক্রমে ক্রমে খ্যাতি এনে দেয় রাশিয়ার সাধারণ নাগরিক জীবনের ব্যাঙ্গাত্মক ইতিবৃত্তকার হিসেবে। ১৯৮২ সালের মধ্যেই খ্যাতনামা প্রকাশক নিকোলাই লেইকিনের পত্রিকা অসকোলস্কিতে তিনি লিখতে শুরু করেন। এই সময়টাতে চেখভের লেখা গল্প ও অন্যান্য রচনার অন্তর্নিহিত ভাব বা সুর ছিল তার পরিণত সময়ের গল্প উপন্যাসের চেয়ে বেশি রূঢ়।

আন্তন চেখভকে বিশ্বসাহিত্যের অন্যতম সেরা ছোটগল্প লেখক হিসেবে বিবেচনা করা হয়ে থাকে, যদিও কোনও কোনও সমালোচকের মতে তিনি নাট্যকার হিসাবেই বেশি সফল। তার ছোটগল্পগুলো একইসঙ্গে লেখক ও সমালোচক সমাজের অকুণ্ঠ প্রশংসা পেয়েছে। চেখভের মুন্সিয়ানা হচ্ছে সমাজের সাধারণ মানুষদের বৈচিত্রহীন, একঘেয়ে জীবনকে সার্থকভাবে সাহিত্যে তুলে আনা। তার বেশিরভাগ গল্প শেষ হয়েছে কোনো ক্লাইম্যাক্স বা নাটকীয়তা ছাড়াই। অবশ্য এর ব্যতিক্রম যে নেই এমন নয়। তবে চেখভের ক্লাইম্যাক্স তার গল্পের মতোই জীবনমুখী ও স্বাভাবিক। পড়ে চমক লাগে না, অথচ গল্পটিও অসাধারণ থাকে।

শুভ জন্মদিন বিখ্যাত সাহিত্যিক ইসমাইল কাদারে

মাত্র ৪৪ বছরের জীবদ্দশায় তিন শতাধিক ছোটগল্প, দুটি উপন্যাস ও ১৬টি নাটক রচনা করেছেন চেখভ। তার রচিত গল্পের মধ্যে – লেডি উইথ দ্য ডগ, ওয়ার্ড নং-৬, দ্য ডার্লিং, দ্য ব্ল্যাক মঙ্ক, গুজবেরিজ, দ্য বেট, দ্য ডেথ অফ এ ক্লার্ক, অ্যাবাউট লাভ, দ্য চামেলেওন, ফ্যাট এন্ড থিন, দ্য হান্টর্সম্যান এবং উপন্যাসের মধ্যে দ্য স্তেপ উল্লেখযোগ্য। এছাড়া থ্রি সিস্টারস, দ্য সীগাল, দ্য চেরি অরচার্ড, আঙ্কেল ভ্যানিয়া ও ইভানভ চেখভের সেরা নাটক হিসাবে বিবেচিত হয়ে থাকে।

দীর্ঘদিন যক্ষারোগে আক্রান্ত থেকে ১৯০৪ সালের ১৫ জুলাই মারা যান আন্তন পাভলোভিচ চেখভ। মৃত্যুর পরপরই তার খ্যাতি ছড়িয়ে পড়ে গোটা বিশ্বজুড়ে। সমসাময়িক রুশ সাহিত্যিকদের মধ্যে আন্তন চেখভকেই দ্বিতীয় শ্রেষ্ঠ লেখক হিসাবে স্বীকার করে থাকেন অনেকেই। সাহিত্যগুরু হিসাবে পরিচিত সেরা রুশ লেখক  লিউ তলস্তয়ের পরপরই ছিল তার অবস্থান। তলস্তয় নাকি একবার তার প্রশংসা করে বলেছিলেন, ‘চেখভ মেয়ে হলে ওকে আমি বিয়ের প্রস্তাব দিতাম।’

কনস্ট্যান্স গার্নেট চেখভের লেখা অনুবাদ করার পর ফলে তিনি পেয়েছেন প্রচুর ইংরেজিভাষী পাঠক, একই সঙ্গে  জেমস জয়েস, ভার্জিনিয়া উলফ, ক্যাথরিন ম্যান্সফিল্ডের মতো বিখ্যতি লেখকদের প্রশংসা ও শ্রদ্ধা। এমনকি চেখভের নাটকের প্রশংসা করেছেন স্বয়ং জর্জ বার্নার্ড শ'য়ের মতো লেখকও। চেখভ ব্যাপকভাবে পঠিত ও জনপ্রিয় হয়েছিলেন আমেরিকাতেও। তার লেখনি দ্বারা যেসব মার্কিন লেখক প্রভাবিত হয়েছিলেন আর্নেস্ট হেমিংওয়ে তাদের অন্যতম।

আজ এই মহান লেখকের ১৬৩তম জন্মদিবসে ওমেন্স নিউজের পক্ষ থেকে জানাই অশেষ শ্রদ্ধা ও অভিবাদন। শুভ জন্মদিন সেরা গল্পকার আন্তন চেখভ।
আরও পড়তে পারেন-শুভ জন্মদিন কবি, সমাজ সংস্কারক ও নারী অধিকারকর্মী সাবিত্রীবাঈ ফুলে
ওমেন্স নিউজ ডেস্ক/

লাইক, কমেন্টস, শেয়ার দিয়ে আমাদের সাথে থাকুন